শুক্রবার , ডিসেম্বর ৪ ২০২০
   শুক্রবার|১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ|৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
    ১৮ই রবিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি
Breaking News

প্রতিটি বিষয়ে নজরদারি করছেন প্রধানমন্ত্রী : ওবায়দুল কাদের

ফোকাস বাংলা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিটি বিষয়ে নজরদারি করছেন এবং নির্দেশনা দিচ্ছেন বলে মন্তব্য করেছেন মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, করোনা মোকাবিলায় নানান সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও সরকার সংক্রমণ রোধ, চিকিৎসা ও মানুষের সুরক্ষায় কাজ করে যাচ্ছে ।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ইতিমধ্যেই স্বাস্থ্য বিভাগে শুদ্ধি অভিযান শুরু হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নিবিড় নজরদারির ফলে সমন্বয়হীনতা কমে এসেছে। প্রধানমন্ত্রীর সাম্প্রতিক পদক্ষেপগুলোয় জনমনে আস্থা আবার সুদৃঢ় হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার সরকারি বাসভবন থেকে দলীয় সভাপতির কার্যালয়ে যুক্ত হয়ে ভিডিও কনফারেন্সে এসব কথা বলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। দলের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপকমিটি আয়োজিত করোনাভাইরাস প্রতিরোধসামগ্রী ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের মধ্যে শুকনো খাবার বিতরণ অনুষ্ঠানে যুক্ত হন তিনি।

সরকারের এ মন্ত্রী বলেন, ‘শেখ হাসিনার নিরলস শ্রম, মানবিক নেতৃত্ব ও দক্ষতার কারণে অন্যান্য দেশের তুলনায় আমাদের সংক্রমণ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। তবে এ নিয়ে আত্মতুষ্টিতে ভোগা চলবে না, যেকোনো সময়ে তা অবনতির দিকে যেতে পারে।’

মানুষের দুর্দশায় পাশে দাঁড়িয়ে মানবিক সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেওয়াই আওয়ামী লীগের ৭ দশকের ঐতিহ্য বলে মন্তব্য করেন দলটির সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, করোনার পাশাপাশি ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা এবং বন্যাদুর্গত মানুষের কল্যাণে দলীয় নেতা-কর্মীদের মানবিক অংশগ্রহণ অব্যাহত আছে। দেশের প্রতিটি অর্জনের সঙ্গে যেমনি রয়েছে আওয়ামী লীগ, তেমনি দেশের প্রতিটি দুর্যোগ ও সংকটে জনমানুষের পাশে রয়েছে আওয়ামী লীগ।’

এ সময় কার্যালয়ে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যাবিষয়ক সম্পাদক রোকেয়া সুলতানা ও উপদপ্তর সম্পাদক সায়েম খান।

ওবায়দুল কাদের জানান, করোনার পাশাপাশি ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় খাদ্য, নগদ অর্থ, চিকিৎসা সহায়তা, সুরক্ষাসামগ্রী নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা। দেশের এক-তৃতীয়াংশ এলাকা বন্যার পানিতে প্লাবিত, দুর্গত মানুষের জন্য রান্না করা খাবারসহ মানবিক সহায়তা নিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছে আওয়ামী লীগ। এভাবেই গণমানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতীক ও আস্থার ঠিকানায় পরিণত হয়েছে ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক সংগঠন আওয়ামী লীগ।

দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী বলেন, আওয়ামী লীগকে ত্রাণের জন্য ডাক দিতে হয় না, আওয়ামী লীগ নিজ থেকেই ত্রাণ নিয়ে ছুটে যায় জনগণের কাছে।

About Bappy Chowdhury

Check Also

‘মাস্টারপ্ল্যান করা হচ্ছে দেশব্যাপী রাস্তা নির্মাণে ’- অর্থমন্ত্রী

ফোকাস বাংলা ডেস্কঃ যত্রতত্র রাস্তা নির্মাণ বন্ধে পরিকল্পিত উপায়ে দেশব্যাপী রাস্তা নির্মাণে মাস্টারপ্ল্যান করা হবে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *